ডাকপিয়ন

চলছে মধুমাস

আফরোজা সুলতানা চৌধুরী শিমু:

“এই যে নেন, মধুর চেয়ে মিষ্টি আম। আগে খাইবেন তারপর কিনবেন “। এমন হাকডাক ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছিল হাতিরপুল বাজারের আম ও লিচু বিক্রেতারা। সাতক্ষীরার আম আর সুদুর দিনাজপুরের নামকরা ” সুস্বাদু লিচু ” তে ভর্তি এখন বাজার। মানুষও দাম কষে কিনছিল। কেউ আবার এক দোকান থেকে অন্য দোকানে ছুটছিল। রাজধানীর বড় ছোট এমনকি অলি গলিতে ও এখন মৌসুমী ফলের সমাহার সাজিয়েছি বিক্রতেরা। ঈদের পর থেকে ক্রেতা বেড়েছে ফলে চাহিদা বেড়েছে মৌসুমী ফলের।

মধুমাস বলা হয় জৈষ্ঠ্য মাসকে। বাজারে হরেক রকমের রসালো সুস্বাদু মৌসুমী ফল পাওয়া যায় বলেই এ মাসকে জৈষ্ঠ্য মাস বলি। রবিবার রাজধানীর একাধিক বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বাজারে এখন মৌসুমী ফলের ছড়াছড়ি। দোকানে আম, লিচু ও কাঁঠালের ছড়াছড়ি। এছাড়াও রয়েছে জাম, জামরুল, তালের শাঁস, লটকন, কামরাঙ্গা, আনারস। এছাড়াও বাজারে আগে আসা তরমুজ, বাঙ্গিও পাওয়া যাচ্ছে।

তবে এ বছর শুরুর দিকে তেমন একটা ফল বাজারে আসেনি। এর কারণ হতে পারে দুটো; একটি বাজারে ফল আসার সময় হয় নি আর দ্বিতীয় কারণ করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ।
মৌসুমের শুরুর দিকে দাম চড়া থাকলেও ভরা মৌসুমে প্রতিবছরই ফলের দাম কমতে শুরু করে, তবে এবার দেখা গেছে তার উল্টো। ভরা মৌসুমে গত তিন দিন আম, লিচু সহ প্রায় সব মৌসুমী ফলের দাম বাড়ছেই। ফল ব্যবসায়ীরা বলছেন, ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে দেশের উপকূলীয় অঞ্চলে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। দেশের বিভিন্ন এলাকায় বৃষ্টি ও প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে অনেকে ফল সংগ্রহ করতে পারছেনা। যার প্রভাব পড়েছে ফলের বাজারে।

আরও পড়ুন...

বাজেট প্রণয়নের কাজ শুরু করল এনবিআর

admin

এলো খুশির ঈদ

ঝলক গোপ পুলক

ইদ হোক করোনা সচেতনতায়

ঝলক গোপ পুলক