ডাকপিয়ন

জার্নালিজম ইজ নট এ ক্রাইম

ঝলক গোপ পুলক:

উৎসর্গ: রেজিনা ইসলাম, সাংবাদিক (প্রথম আলো)

আমরা ধীরে ধীরে লক্ষ করছি রাষ্ট্রের ফ্যাসিবাদী আচরণ, ফ্যাসিবাদী আগ্রাসন, অন্ধকার ঘনিয়ে আসছে, ফ্যাসিস্ট সরকার ধীরে ধীরে আমাদের উপর চাপিয়ে দিচ্ছে তাদের সকল অগণতান্ত্রিক মোর্চা। আমরাও চেয়ারে বসে ভুয়া চকলেট দেখে লাফাচ্ছি। সরকার আমাদের পদ্মাসেতু দেখাচ্ছে আমরা বেশ দেখছি আর লাফাচ্ছি আমার দেশে উন্নয়ন হচ্ছে, সরকার আমাদের বড় বড় করোনা হাসপাতাল দেখাচ্ছে আমরা আরাম কেদারায় বসে ভাবছি এই বুঝি পালালো করোনা কিন্তু শুভঙ্করের ফাঁকি যে কই দিচ্ছে তা জানতে আর বুঝতে চাওয়া জনগণ খুব কমই আছে আর যারা ফাঁকি বুঝে অধিকার আদায়ের জন্য ধাঁবা বসায় অমনি উনাকে পুরে দেয়া হয় ষোল শিকের ভেতরে। হ্যাঁ এমন অগণতান্ত্রিক ধারা হয়তো আমাদের অগোচরেই লিখিত হয়ে গেছে কন্সটিটিউশনে।

আজ কার্টুনিস্ট তো কাল সাংবাদিক, কাল সাংবাদিক তো পড়শু লেখক একের পর এক চলছে নির্যাতন তাদের উপর দেয়া হচ্ছে মিথ্যে মামলা, তারপর মামলা প্রত্যাহার হওয়ার আগ পর্যন্ত চলে মারধোর। কি মনে করেছেন সত্যের পক্ষে বলা মানুষদের মধ্যে সবগুলোর ডানা কেটে দিবেন? পারবেন না সত্যের পক্ষে পৃথিবীর শুরু থেকে মানুষ যেভাবে কথা বলে আসছিলো এখনো শত মার খাওয়ার পরেও সেই মানুষ সত্যের পক্ষে আর মিথ্যের বিপক্ষে আঙুল তুলেই কথা বলবে।

এই যে আপনারা এত্তো উন্নয়ন, এত্তো উন্নয়ন বলেন তাহলে এইসব কি সাংবাদিকেরা প্রমাণ ছাড়াই পত্রিকায় ছাপে, আপনারা সাংবাদিকদের এতো ভয় পান কেনো বলুন তো? কারণ আপনাদের এইসব উন্নয়ন মেরুদন্ডহীন। এতটু আধটু সত্য সামনে আসলেই আপনাদের উন্নয়ন ভেঙে পড়ে।

আপনাদের অবস্থা দেখুন একবার শুধুমাত্র স্বাস্থ্য খাত নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগে প্রথম আলোতে রিপোর্ট করায় আপনারা সাংবাদিক রেজিনা ইসলাম কে জেলে পুরেছেন আরো তো শত শত খাত পড়েই রয়েছে ঐগুলোর দুর্নীতিতে সাংবাদিকদের হাত পড়লে কয়জনকে দমন করবেন? কতজনকে? একজন! দুইজন! এক হাজার জন! তারপর?

ধ্বসে পড়বে রাষ্ট্রকাঠামো, সৃষ্টি হবে নতুন রাষ্ট্র, মানুষের বহুল আকাঙ্ক্ষিত সেই রাষ্ট্রকাঠামো যেখানে দুর্নীতি থাকবে না, যেখানে গণতন্ত্র থাকবে, প্রত্যেকটা মানুষের কাছে সরকার জবাবদিহিতা করতে বাধ্য থাকবে।

শুধু মাত্র স্বাস্থ্যখাতে ৩৫০ কোটি টাকার অনিয়ম আর বাকি খাতগুলোর অনিয়ম হিসাব করলে কতয় গিয়ে দাঁড়াবে? কি হবে এসব মাথাপিছু আয়ফায় দিয়ে? দেশের উন্নয়ন দিয়ে? সব খাইয়া ফালান জনগণ কিচ্ছু চায় না আপনাদের কাছে। জনগণ আপনাদের কাছ থেকে শুধু ফ্যাসিবাদী আচরণ চায়।

সাংবাদিকতা অপরাধ নয়। এটি দেশের অগ্রগতিতে ভূমিকা রাখার মতো একটা পেশা যে পেশা মুক্ত, যে পেশায় পেশাদার প্রমাণ ছাড়া কোনো সংবাদ প্রকাশ পারে না। যে পেশা পৃথিবীর কাছে বাংলাদেশের উন্নয়ন, অগ্রগতিকে তুলে ধরে, প্রস্ফুটিত করে সেই পেশাদারদের ষোল শিকে নয় তাদের মুক্ত আকাশে উড়তে দিন।

আরও পড়ুন...

আদর্শের মৃত্যু নেই

news dakpiyan

রবীন্দ্রনাথ ও বাংলা সাহিত্য

ঝলক গোপ পুলক

তুমি এসেছিলে বলে

ঝলক গোপ পুলক