ডাকপিয়ন

তিতুমীর কলেজের প্রতিষ্ঠার ৫৩ বছর

করোনায় নিরবতা চারপাশে। নেই শিক্ষার্থীদদের কলরব। নেই শিক্ষকদের ব্যস্ততা। করোনা মহামারি এই সময় প্রতিষ্ঠার ৫২ তম বছরকে টপকে ৫৩ বছরে পা রাখলো সরকারি তিতুমীর কলেজ। ইতিহাসের পাতায় সাক্ষী হয়ে রয়েছে ঐতিহ্যবাহী এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি।

‘জিন্নাহ কলেজ’ নামে ১৯৬৮ সালে প্রথম প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল বিদ্যাপীঠটি । তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের গভর্নর মোনায়েম খান জগন্নাথ কলেজের(বর্তমানে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়) ছাত্র-আন্দোলনকে নির্মূল করার জন্য মহাখালীতে অবস্থিত ডিআইটি খাদ্যগুদাম হিসেবে পরিচিত ভবনে জগন্নাথ কলেজের ডিগ্রি শাখা স্থানান্তর করেন। আর এর নামকরণ করেন জিন্নাহ কলেজ।

১৯৭১ সালের ১ মার্চ পাকিস্তানের সামরিক জান্তা ইয়াহিয়া খান রেডিও-টেলিভিশনে এক ভাষণে ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি স্থগিত ঘোষণা করার সঙ্গে সঙ্গে জিন্নাহ কলেজ শাখার ছাত্র সংসদের প্রথম সহ-সভাপতি (ভিপি) সিরাজউদ্দৌলার নেতৃত্বে টিপু মুনশি ও শাহাবুদ্দিনসহ তৎকালীন কতিপয় ছাত্রনেতা প্রতিক্রিয়া হিসেবে জিন্নাহ্ কলেজের সাইনবোর্ড ভেঙে ফেলেন।

তখন আনিসুজ্জামান খোকন (জিন্নাহ কলেজের ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক) জিন্নাহ কলেজের নাম ‘তিতুমীর কলেজ’ করার প্রস্তাব করেন। ২ মার্চ ছাত্রলীগের কর্মীরা মিছিল করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহাসিক বটতলায় জড়ো হলে সেখানে তৎকালীন ডাকসু ভিপি আ স ম আবদুর রবের মধ্যস্থতায় জিন্নাহ্ কলেজের নাম ‘তিতুমীর কলেজ’ হিসেবে চূড়ান্ত করা হয়।

ঐ রাতেই ‘তিতুমীর কলেজ’ নামকরণের সাইনবোর্ড লেখা হয় এবং দেয়ালে টাঙিয়ে দেয়া হয়।এলাকার কিছু যুবক তিতুমীর নামকরণের ব্যাপারে সার্বিক সহযোগিতা করেন। বর্তমানে তিতুমীর কলেজ ৬৭ হাজার শিক্ষার্থী রয়েছে।

ডিপি/এসএস

 

আরও পড়ুন...

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ

admin

চবি ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা

admin

এইচএসসি মানোন্নয়নের ফল রোববার

admin